বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে ‘হ্যান্ড সেক’ বন্ধ করা জরুরি

ব্রিটিশ বাংলা নিউজ : বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে করমর্দনের অভ্যাস পরিবর্তন অত্যন্ত জরুরি হয়ে পড়েছে। হ্যান্ড সেক বা করমর্দন বন্ধ করার মাধ্যমে এর বিস্তার ঠেকাতে সবার এগিয়ে আসা উচিত। তবে হাত ধোয়া অবশ্যই জরুরি। এমনটাই বলছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

২০১৪ সালে ওয়েলস বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই জীববিজ্ঞানী – ডেভিড হুইটওয়ার্থ এবং সারা মেলার প্রকাশিত একটি গবেষণায় দেখা গেছে শুভেচ্ছা জানানোর আচার ভয়ানক ভাবে সংক্রামক রোগ ছড়ায়। তার একটি চিত্র নিচে দেয়া হলো।

‘স্টপ সেকিং হ্যান্ড’ হ্যাশ ট্যাগ দিয়ে ইতোমধ্যে ব্রিটেনে করমর্দন বা হ্যান্ড সেক না করতে মানুষকে উৎসাহিত করা হচ্ছে। পরিবর্তে ইশারায় বা সালামের মাধ্যমে শুভেচ্ছা বিনিময়ের অভ্যাস করা এখন খুবই জরুরি হয়ে পড়েছে।

১৪৩৯ সালে ইংল্যান্ডের রাজা ষষ্ঠ হেনরি ব্ল্যাক প্লেগের বিস্তার বন্ধ করতে অভিবাদন হিসাবে চুম্বন নিষিদ্ধ করেছিলেন। বর্তমানে , কোভিড -১৯ বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ার সাথে সাথে বিভিন্ন দেশের কর্তৃপক্ষ সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য অনুরূপ পদক্ষেপ গুলো উৎসাহিত করছেন ।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) সাবেক পরিচালক অধ্যাপক ড. মাহমুদুর রহমান বলেন, করোনাভাইরাসটি ভয়াবহ ছোঁয়াচে, একজন আক্রান্ত হলে তার মাধ্যমে প্রায় অর্ধশত মানুষ আক্রান্ত হতে পারে। এ ক্ষেত্রে আমাদের প্রচলিত কিছু অভ্যাস পরিবর্তনের মাধ্যমে শুধু করোনাভাইরাস থেকেই নয়, বিভিন্ন রোগব্যাধি থেকে রক্ষা পেতে পারি।

তিনি বলেন, আমরা দেখা হলেই সৌজন্যবশত হাত বাড়িয়ে দিয়ে করমর্দন করি। এ করমর্দনের মাধ্যমে খুব সহজেই যেকোনো রোগের জীবাণু সংক্রমিত হতে পারে। এ ক্ষেত্রে করমর্দন না করে সালাম বিনিময় করলেই সংক্রমণ ঠেকানো যায়। বর্তমান পরিস্থিতিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সরকারিভাবেই করমর্দন বন্ধ রাখার ব্যাপারে প্রচার প্রচারণা হওয়া উচিত।

করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে মুসলিমদের ঐতিহ্যবাহী ‘করমর্দন’ করা বন্ধ করে দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন লন্ডনের মেয়র সাদিক খান।

তিনি বলেছেন, ‘আমি এখন করমর্দন করছি না। কারণ আমাদের প্রস্তুত থাকতে হবে’। করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে এমন আশঙ্কা থেকেই তিনি মুসলিমদের ঐতিহ্যবাহী অভিবাদনের এই পদ্ধতি বর্জন করেছেন।

তবে লন্ডনের মেয়র বলেছেন,আপনি যদি নিয়মিত সাবান এবং পানিতে হাত ধুয়ে নিজেকে রক্ষা করেন তবে আপনার জন্য করমর্দন করা ঠিক আছে। কিন্তু কাজের ব্যস্ততার জন্য অনেকেই সব সময় সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার রাখার সুযোগ পায় না। তাই এ অভ্যাস এখন অবশ্যই পরিবর্তন করা দরকার।

তিনি আইটিভি নিউজকে তিনি বলেন, ‘আমি এখন করমর্দন করছি না। কারণ আমাদের প্রস্তুত থাকতে হবে এবং বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের কাছ থেকে আমি যে পরামর্শ পেয়েছি তা হল,আপনি যদি বিশ্বজুড়ে লক্ষ করেন তাহলে দেখবেন তারা করমর্দন করা বন্ধ করে দিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!