ব্রিকলেন ১৯৭৮ চিত্র প্রদর্শনী শুরু হচ্ছে ১০ জুন লন্ডনে

আনসার আহমেদ উল্লাহ:

বর্ণবাদকে পরাস্থ করে ব্রিটেনে বাঙ্গালীর বসতি স্থাপনের ইতিহাস নিয়ে ‘ব্রিকলেন ১৯৭৮: ঘুড়ে দাড়ানোর সময়’ শিরোনামে  ১০ জুন লন্ডনে শুরু হচ্ছে চিত্র প্রদর্শনী।  ১৯৭৮ সালে পূর্ব লন্ডনে বর্ণবাদীদের হাতে নিহত ২৪ বছরের বাঙ্গালী যুবক আলতাব আলী হত্যাকান্ডের প্রতিবাদ, ন্যায়বিচার ও সমঅধিকার প্রতিষ্টার দাবীতে সেসময়কার বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনের উপর ধারনকৃত আলোকচিত্র ও সর্টফিল্ম ফোর কর্ণাস নামের সংগঠনটি নতুন করে প্রদর্শনের জন্য নথিভূক্ত করেছে।

ব্রিকলেন ১৯৭৮ : ঘুরে দাড়ানোর সময়  নামে সেসময়কার কঠিণ সময়ের ঘটনাবলি অবলম্বনে ও তখনকার সময়য়ের  অ্যাক্টিভিস্টদের মৌখিক বিবরণ  পল ট্রেভারের সত্তরটি চিত্রকে প্রথমবারের মতো প্রদর্শনের ব্যবস্তা করেছে । যারা এই গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাগুলির সাথে জড়িত ছিলেন এই হেরিটেজ প্রকল্পের ফোর কর্নারস, স্বাধীনতা ট্রাস্ট ও নিবেদিত স্বেচ্ছাসেবক দল তাদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করেছেন ।

স্বাধীনতা ট্রাস্টের চেয়ার জুলি বেগম বলেন, “লন্ডনের ইস্ট এন্ডে বাঙালি সম্প্রদায় যে বর্ণবাদী সহিংসতার মুখোমুখি হয়েছিল তা স্মরণ করতে এবং বর্ণবাদের কালথাবাকে পরাজিত করতে সকল সম্প্রদায়ের ঐক্যবদ্ধ প্রতিরক্ষা  ও একাত্মতা উদযাপন করতে আলতাব আলী দিবস পালন  করা আমাদের সকলের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।”

সেসময়কার আলোকচিত্রকার পল ট্রেভার বলেন , “ অনেকেই মনে করেন একটি ফটো হাজার শব্দের  চেয়েও শক্তিশালী । কিন্তু কখনও কখনও, এই ক্ষেত্রে,  মুখের কথা  খুবই অপরিহার্য। এই প্রকল্পটি সেই ঐতিহাসিক আলোকচিত্রে যারা ইতিহাস তৈরি করেছে তাদের  অনেকের  মৌখিক স্মৃতিচারন সহ তুলে ধরার একটি সুযোগ করেছে।“

কার্লা মিচেল, ফোর কর্নারের আর্টিকষ্টিক ডেভল্যপমেন্ট পরিচালক বলেন, “এই ইতিহাস আজ অত্যন্ত প্রাসঙ্গিক। ন্যাশাল লটারি ফান্ডকে ধন্যবাদ, তাদের সাহায্যাই আমরা  বর্তমান এবং ভবিষ্যতের জন্য একটি ঐতিহাসিক প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করতে পারছি।  আমরা নিশ্চিত করে বলতে পারি এই প্রজেক্টটি  বর্তমান এবং ভবিষ্যত প্রজন্মের ব্যাপক দর্শকদের জন্য সর্বজনীনভাবে গ্রহণযোগ্য করে তোলা হয়েছে। ব্রিক লেন ১৯৭৮ : ঘুরে দাড়ানোর সময় প্রদর্শনী পাবলিকের জন্যে উদ্ভোধন করা হবে  শুক্রবার ১০ জুন ।

১০ জুন থেকে ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২, সকলের জন্যে প্রবেশাধিকার ফ্রি। খোলার সময় সকাল ১১টা থেকে সন্ধ্যে ৬টা । মঙ্গল  থেকে শনিবার, বৃহস্প্রতিবার  রাত ৮টা।  ফোর কর্নাস গ্যালারী  ১২১ রমান রোড, বেথনালগ্রীণ , লন্ডন লন্ডন-ই২  ওকিউএন।  নিকটবর্তি আন্ডার গ্রাউড ষ্টেশন বেথনাল গ্রীণ-সেন্ট্রেল লাইন।

ঐতিহাসিক ঘটনার নেপথ্যেঃ  ১৯৭৮ সালের শুরুর দিকে  ব্রিটেনের বর্ণবাদী ন্যাশনাল ফ্রন্ট ও অন্যান্য বর্ণবাদিরা সমগ্র ব্রিটেন তথা ইষ্ট লন্ডনের ব্রিকলেন ও তার আশপাশ এলাকায় বাঙ্গালী অভিবাসীদের উপর ক্রমাগতভাবে  শারিরিক আক্রমণ ও বর্ণবাদী আচরন চালাতে থাকে। বিশেষ করে স্কীনহেডদের আক্রমন বাড়তে থাকে।

১৯৭৮ সালের ৪টা মে গারমেন্টস শ্রমিক  আলতাব আলীর হত্যাকান্ডের সয়য় স্থানীয় নির্বাচন যেখানে ৪১ জন ন্যাশনাল ফ্রন্ট প্রার্থী দাঁড়িয়েছিল, বাঙালি সম্প্রদায়ের জন্য   একটি টার্নিং পয়েন্ট চিহ্নিত করেছিল।  যে দিন আলতাব আলী বর্ণবাদীদের হাতে খুন হন। ঐদিন ছিল স্থায়ীয় নির্বাচন। এই ঘটনার পর বাঙ্গালী সহ সকল মাইগ্রেন্ট কমিউনিটির মানুষ ঐক্যব্দ হয়, গড়ে তোলে প্রতিরোধ। ১৪মে আলতাব আলীর কফিন নিয়ে সাত হাজার মানুষ হাইড পার্ক হয়ে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে  গিয়ে  স্মারক লিপি প্রদান করে দশ নং ডাইনিং ষ্ট্রীটে।  এবছরই ব্রিটেনের  বাঙ্গালী যুবকরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে উগ্রবাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলে।  এন্টি রেসিষ্ট মৃভমেন্টের কারনে ইষ্টলন্ডন থেকে বর্নবাদ  বিশেষ করে  ন্যাশনফন্ট , পাররাইট পিচু হটতে বাধ্য হয়। 

স্থানীয় ফটোগ্রাফার পল ট্রেভার ৪০০ টিরও বেশি ফটোগ্রাফে  বর্নবাদীদের  নাটকীয় ঘটনাগুলি তুলে ধরেছেন তার আলোক চিত্রে।  যার মধ্যে অনেকগুলি এই প্রদর্শনীতে প্রথমবারের মতো প্রদর্শিত হবে৷ তার ছবিতে ফুটে উঠেছে  কীভাবে স্থানীয় বাঙালি  সহিংসতা ও বর্ণবাদের অবসান ঘটাতে ঐক্যবদ্ধ হয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!